বিনোদন

নেট দুনিয়ায় মশগুল এনাতে


সি নিউজ: এনা সাহা। টালিউড ইন্ডাস্ট্রির এমন এক অভিনেত্রী যার মধ্যে দুষ্টু-মিষ্টি ফিচারস একেবারে সামনভাবে ভরপুর। কোনটাই এক চিলতে কম বা বেশি নয়। সবটাই এক রকম এনার সৌন্দর্যে। সেটাই অভিনেত্রী আবারও প্রমাণ করে দিলেন তার এই নতুন ভিডিওতে। ডিজিটাল দুনিয়ায় এখন সকলে ভাইরাল। শুধু হাটকে কোনও একটি পোস্ট। ব্যস! নিমেষের মধ্যে ভাইরাল আপনিও। তবে এনা সেরকম তালিকায় নাম লেখাননি। যা তা পোস্ট নয়। বেশ বোল্ড ছবি, কিংবা চোখ ধাঁধানো ভিডিও পোস্ট করেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেয়ে যান এনা। সম্প্রতি একটি ভিভিও অ্যাপ প্রথমবার ব্যবহার করলেন এনা। সেই ভিডিওই পোস্ট করে ফের শিরোনামে উঠে এলো তার নাম। মিউজিকালি অ্যাপটির নাম কমবেশি সকলেই শুনে থাকবেন। এই অ্যাপের মাধ্যমেই বহু সাইবার ইউজাররা জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। কোনও গান কিংবা ছবির ডায়লগ সবরকমই থাকে এই অ্যাপে। ইউজার ইচ্ছেমতো গান বা ডায়লগ সিলেক্ট করে নিজের মতো ভিডিও বানাতে পারে। সেই অ্যাপলিকেশনটাই প্রথমবার ব্যবহার করেই বেজায় খুশি অভিনেত্রী। ‘বীরে দি ওয়েডিং’ ছবির ‘তারিফা’ গানটিতে ভিডিও করেছেন এনা। সেই গানে তার এক্সপ্রেশন থেকে ঘায়েল হয়েছে অসংখ্য যুবকের মন। এই ভিডিওই এখন সোশ্যাল সাইটের ফিডে ঘুরে ফিরে বেড়াচ্ছে। এছাড়াও নানা রকমের পোস্টে প্রায় ভাইরাল হয়ে ওঠেন এনা। কখনও ফোটোশ্যুটের, তো কখনও নো মেক আপ লুকের৷ তো আবার কখনও ওয়ার্ক আউটের। তবে রোজ ইদানিং সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে খানিক কম সক্রিয় তিনি। আসলে সম্প্রতি এনা ব্যস্ত তাঁর আপকামিং প্রজেক্টগুলি নিয়ে। ‘ভূত চতুর্দশী’ ছবিতে মুখ্য অভিনয় অভিনয় করতে চলেছেন তিনি। ছবিতে অন্যরকম ভূমিকায় দেখা যাবে এনাকে। যারা ভাবেন বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো ভূতের ছবি, ধারাবাহিক তৈরি হয় না। এই ধারণাকে একেবারে ধুয়ে মুছে সাফ করা সম্ভব নয়। তবে সেই অসম্ভবকেই সম্ভব করতে ‘ভূত চতুর্দশী’ নিয়ে ময়দানে নামছেন মৈনাক ভৌমিক। ছবিতে ডেবিউ পরিচালক সাব্বির মালিকের সঙ্গে থাকছে আরও চমক। ছবির কলম ধরেছেন মৈনাক ভৌমিক। জেন ওয়াইয়ের তারকাদের নিয়েই তৈরি হচ্ছে এই ছবি। এনা সাহার পাশাপাশি রয়েছেন আরিয়ান ভৌমিক মতো অভিনেতা৷ এছাড়াও মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করবেন ভিডিও জকি দীপ্সিতা মিত্র এবং সৌমেন্দ্র ভট্টাচার্য। ছবিতে চারজনই কলেজে পড়ুয়া। ভূত নিয়ে সবারই মনের কোনায় একটা উত্তেজনা কাজ করে। একই রকমভাবে এই চারটি ছেলেমেয়েও ভূত চতুদর্শী নিয়ে গবেষণা শুরু করে। সবাই মিলে ঠিক করে ফেলে বানাব ডকুমেন্টারি। স্বাভাবিকভাবেই কুখ্যাত ভূতুরে লোকেশনে শ্যুট করতে পৌঁছয় ওরা। পরিত্যক্ত একটি জায়গায় গিয়ে শ্যুট শুরু করতেই মাথাচারা দেয় নানা সমস্যার। শ্যুট করার কিছু পরেই শুরু হয় অলৌকিক কান্ডকারখানা। ডকুমেন্টারি শ্যুট করতে গিয়ে অলৌকিক ঘটনা, ভূতুরে জায়গায় ঘুরতে গিয়ে ভূতের খপ্পরে পড়া। এসব হলিউড বলিউডে দর্শকরা দেখে এসেছেন। একই ধারার ছবি নিয়ে পরিচালক সাব্বির আসছেন ঠিকই তবে নিজের কায়দায়। দর্শকদের অন্যধারার ভৌতিক ছবি উপহার দেওয়ার প্রস্তুতিতে রয়েছেন সাব্বির। তিনি এক নতুন প্রজন্মের শিল্পী। এর আগে মৈনাকের বেশ কয়েকটি ছবিতে অ্যাসিসট্যান্ট হিসেবেও কাজ করেছেন।

Admin

0 Comments

Please login to start comments