৩ মাসে ৬৩ হাজার এনআইডি যাত্রী যুক্ত হচ্ছে আরো ১২ ট্রেন


সি নিউজ ডেস্ক : জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) দিয়ে ট্রেনের টিকিট কাটার ব্যবস্থা চালুর পর অর্ধলাখের বেশি যাত্রী এ ব্যবস্থায় যাতায়াত করেছেন। বছরের প্রথম মাসে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের সোনার বাংলা ট্রেনে এনআইডি দিয়ে টিকিট কাটার ব্যবস্থা শুরু করেছিল বাংলাদেশ রেলওয়ে। এপ্রিল মাস পর্যন্ত দেশের মোট ছয়টি ট্রেনের টিকিট এই পদ্ধতিতে বিক্রি করা হচ্ছে।

এ বছরের মধ্যেই দেশের সব ট্রেনে এ ব্যবস্থা চালু করতে চায় রেলওয়ে। এর ধারাবাহিকতায় আগামী ১৫ এপ্রিল থেকে আরো ১২টি ট্রেনে এনআইডি দিয়ে টিকেটিং ব্যবস্থা প্রবর্তন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

রেলওয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তাদের জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট দিয়ে টিকিট দেওয়া হচ্ছে। আর বিদেশি পর্যটকরা তাদের পাসপোর্ট দেখিয়ে টিকিট নেওয়ার সুবিধা পাচ্ছেন। এছাড়া এনআইডি ব্যবস্থা প্রবর্তনের পর ৬৩ হাজার যাত্রী জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে টিকিট কেটেছেন। এ পদ্ধতিতে ২ লাখ ৭৭ হাজার ১৪০টি টিকিট বিক্রি করা হয়েছে।

রেলওয়ে ই-সেবার মাধ্যমে যাত্রা করেছেন এখন পর্যন্ত ৮ লাখ ১২ হাজার ৭৫৬ জন যাত্রী।ট্রেন টিকিটে এনআইডি ব্যবস্থা প্রবর্তন সফল হওয়ায় এখন রেলওয়ে এর পরধি আরও বাড়াচ্ছে। শুরুতে সোনার বাংলার পর এনআইডি দিয়ে টিকিট চালু হয় সুবর্ণ, পারাবত, পদ্মা দ্রুতযান ও চিত্রা এক্সপ্রেসে।

আগামী ১৫ এপ্রিল থেকে রাজশাহীগামী ধুমকেতু, সিল্কসিটি, খুলনাগামী সুন্দরবন, দিনাজপুরগামী একতা এক্সপ্রেস, চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস, রংপুর এক্সপ্রেস, সৈয়দপুর-খুলনা-সৈয়দপুর এর মধ্যে চলাচলকৃত সীমান্ত এক্সপ্রেস, ঢাকা-সিলেট রুটের উপবন, সিলেট-চট্টগ্রাম রুটের উদয়ন এক্সপ্রেস, ঢাকা নেত্রকোনা রুটের হাওর এক্সপ্রেস, দেওয়ানগঞ্জগামী তিস্তা এক্সপ্রেস, কিশোরগঞ্জগামী অগ্নিবীনা এক্সপ্রেস ট্রেনে জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদর্শন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে মহাপরিচালক রফিকুল আলম জানান, ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি শুন্য পর্যায়ে নামিয়ে আনতে তারা দেশের সবকটি ট্রেনে জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে টিকিট কাটার ব্যবস্থা প্রবর্তন করতে চান। ধাপে ধাপে সব আন্তঃনগর ট্রেন টিকিট জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে টিকিট কাটার ব্যবস্থা চালু করা হবে বলেও জানান তিনি।

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments