জাতীয়

২০৩০ সালের আগেই কুষ্ঠ মুক্ত হবে বাংলাদেশ : প্রধানমন্ত্রী


সঠিক ব্যবস্থা নিলে ২০৩০ সালের আগেই বাংলাদেশ কুষ্ঠ রোগ মুক্ত হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার সকালে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে আয়োজিত কুষ্ঠবিষয়ক জাতীয় সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘প্রাথমিক পর্যায়ে যদি রোগ শনাক্ত এবং চিকিৎসার ব্যবস্থা নেওয়া যায়, তাহলে আর এটা বৃদ্ধি পায় না। এর ফলে সহজেই এ রোগ নিরাময় সম্ভব।’

সারা দেশে তিন হাজারেরও বেশি মানুষ এই রোগে আক্রান্ত হচ্ছে বলেও জানান সরকারপ্রধান। তিনি বলেন, ‘এখনো যেসব এলাকায় কুষ্ঠ রোগের প্রাদুর্ভাব রয়েছে, সেসব এলাকার দিকে আমাদের আরও বিশেষভাবে দৃষ্টি দিতে হবে। তাহলে আমি মনে করি, আমরা ২০৩০ সালের আগেই বাংলাদেশকে কুষ্ঠ রোগ মুক্ত করতে সক্ষম হবো।’
 
কুষ্ঠ রোগীদের সুচিকিৎসা ও পুনর্বাসনে সরকার কাজ করে যাচ্ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কুষ্ঠ রোগীদের ঘরে বাইরে আসার সুযোগ করে দিতে ও স্বাভাবিক জীবন দিতে আইনে পরিবর্তন আনা হয়েছে। আইন সংশোধনের মাধ্যমে তাদের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা ও বাইরের পৃথিবী দেখার সুযোগ করে দিয়েছি। এ বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতেও কাজ করছি।’

কুষ্ঠ নির্মূলে গবেষণার প্রয়োজন উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, কুষ্ঠরোগ কোনো অভিশাপ নয়। জীবাণুর সংক্রমণে এ রোগের বিস্তার। এর জন্য দেশীয় গবেষকদের ‍প্রয়োজনীয় গবেষণায় আত্মনিয়োগের আহ্বান জানান তিনি।

পাশাপাশি কুষ্ঠ রোগীদের সহানুভূতির সঙ্গে দেখতে সবার প্রতি আহ্বান জানান সরকারপ্রধান। তিনি বলেন, ‘সাধারণ মানুষকে আমি বলব, এরা সমাজেরই একজন। তাই তাদের সহানুভূতির সঙ্গে দেখা, তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করুন।’

সম্মেলনে দেশের কুষ্ঠ রোগীদের নিয়ে যেসব বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা কাজ করছে তাদের প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী। সেইসঙ্গে এ কাজে আরও অংশগ্রহণ বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থাকে এগিয়ে আসারও আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments