খেলাধুলা

স্বাধীনতা কাপের চ্যাম্পিয়ন নবাগত বসুন্ধরা কিংস


সি নিউজ ডেস্ক: কয়েকদিন আগেই ফেডারেশন কাপে প্রথমবারের মতো অংশ নিয়ে ফাইনালে পৌঁছে যায় বসুন্ধরা কিংস। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ঢাকা আবাহনীর কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন হবার স্বপ্ন ভঙ্গ। বুধবার স্বাধীনতা কাপ ফুটবলের ফাইনালে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের বিপক্ষে শিরোপার লড়াইয়ে নেমেছিল নবাগত দলটি।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ২-১ গোলে জয় নিয়ে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হলো কিংসরা। সবশেষ ২০১২-১৩ মৌসুমে স্বাধীনতা কাপের শিরোপা নিজেদের ঘরে তুলে শেখ রাসেল। শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশনে নেমে এদিন শুরু থেকেই দাপট দেখায়। যে দিকেই বল সেদিকেই নীল জার্সির বিচরণ দেখায় যায়।

চলতি মৌসুমে বসুন্ধরা কিংসের টানা দ্বিতীয় ফাইনাল ছিল এটি। ঢাকা আবাহনীর কাছে নবাগতরা ফেডারেশন কাপের ফাইনালে হারের পর এ ম্যাচে জয় পেতে মরিয়া ছিল। প্রথমার্ধে বল দখলের লড়াইয়ে পিছিয়ে থাকার পরও এগিয়ে যায় কিংসরা।

ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড মার্কোস ভিনিসিয়াস দুর্দান্ত গোল দিয়ে প্রতিপক্ষের সবাইকে হতাশ করেন। যদিও থেমে থাকেনি শেখ রাসেল শিবির। বারবার আক্রমণ চালাতেই থাকে সাইফুল বারী টিটুর শিষ্যরা। প্রথমার্ধের আগে শেখ রাসেল কয়েকটি সুযোগ তৈরি করেছিল। যদিও বসুন্ধরার গোলকিপার আনিসুর রহমান জিকোর কাছে সুবিধা করতে পারেনি শেখ রাসেলের আক্রমণ ভাগ।

তবে বিরতিতে যাবার আগে সমতায় ফেরে আশরাফুল ইসলাম রানার দল। নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড রাফায়েল ওডোয়িন গোল করে দলতে স্বস্তি এনে দেন। দ্বিতীয়ার্ধে নেমেও ঠিক আগের মতোই খেলা চালিয়ে যায় শেখ রাসেল। তবে দুই পক্ষের কেউই গোল না দিতে পারার কারণে শেষ পর্যন্ত ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়।

উত্তেজনাকর ফাইনালে অতিরিক্ত সময়ের পঞ্চম মিনিটে ফের এগিয়ে যায় বসুন্ধরা। জাতীয় দলের নতুন মুখ মতিন মিয়ার গোলেই শেষ পর্যন্ত জয় নিয়ে শিরোপা উৎসব করে স্প্যানিশ কোচ অস্কার ব্রুজোনের শিষ্যরা। ফাইনালে অসাধারণ গোল দিয়ে সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন মার্কোস ভিনিসিয়াস। পুরো টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত সব সেভের কারণে টুর্নামেন্ট সেরা হয়েছেন কিংসদের গোলকিপার জিকো।

 

 

Admin

0 Comments

Please login to start comments