জাতীয়

'সত্যতা নিশ্চিত না হয়ে পুলিশ সদস্য বলে প্রচার না করার অনুরোধ'


সিনিউজ: ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মো. মনিরুল ইসলাম বলেছেন, ওয়াকিটকি শুধু পুলিশ সদস্যরাই ব্যবহার করে না। পুলিশের পাশাপাশি অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষার কাজে নিয়োজিত সদস্যরা, গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা ও বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থার সদস্যরাও ওয়াকিটকি ব্যবহার করেন।

সত্যতা নিশ্চিত না হয়ে পুলিশ সদস্য বলে প্রচার না করার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ‘জঙ্গি আস্তানায়’ অভিযান নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে ব্রিফিংয়ের সময় এক প্রশ্নের জবাবে মনিরুল ইসলাম এসব কথা বলেন।

ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান বলেন, রাজধানীর চারটি ক্লাবে গত বুধবার রাতে একযোগে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান চালানো হয়। অভিযানের সময় ক্যাসিনো পরিচালনায় যুক্ত নেপালিরা আত্মগোপনে চলে যান। তাদের গাঢাকা দিতে সহায়তা করছিলেন হাতে ওয়াকিটকি থাকা অজ্ঞাত পরিচয় এক ব্যক্তি। এমনটি দেখা গেছে রাজধানীর সেগুনবাগিচা এলাকার একটি ফ্ল্যাটের সিসিটিভি ফুটেজে। কিন্তু অনেকেই না জেনে ওয়াকিটকি হাতে সাদা পোশাকধারী ব্যক্তিকে পুলিশ সদস্য বলে মন্তব্য করেছেন।

মনিরুল ইসলাম বলেন,নেপালিদের আত্মগোপনের বিষয়টি নিয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা সংস্থার বিভিন্ন টিম কাজ শুরু করছে। সিসিটিভির ছবি পরীক্ষা করে ওয়াকিটকি হাতে থাকা ওই ব্যক্তির পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

প্রসঙ্গত, রাজধানীর ৪টি ক্লাবে গত বুধবার রাতে একযোগে ক্যাসিনো বিরোধী অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানের সময় ক্যাসিনো পরিচালনায় যুক্ত নেপালিরা হঠাৎই সটকে পড়েন। তাদের গাঁ ঢাকা দিতে সহায়তা করছিলেন হাতে ওয়াকি-টকি থাকা অজ্ঞাত পরিচয় এক ব্যক্তি। এমন প্রমাণ মিলেছে রাজধানীর সেগুনবাগিচা এলাকার একটি ফ্ল্যাটের সিসিটিভি ফুটেজে। অভিযোগ পাওয়ার পর বাড়িটি পরিদর্শন করেছেন ডিএমপির রমনা জোনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। তারা বলছেন, তদন্তে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কারো সম্পৃক্ততা মিললে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments