শপথ নেয়ার সময় চেয়ে চিঠি দেইনি: ফখরুল


সি নিউজ ডেস্ক : সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিতে স্পিকারের কাছে সময় চেয়ে কোনো আবেদন করেননি বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘শপথ নেয়ার বিষয়ে আমি কোনো চিঠি দিইনি। স্পিকারের কাছে কোনো সময় চাইনি। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য কিছু কিছু পত্রিকা লিখেছে, আমি শপথের জন্য সময় চেয়েছি।’

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি। উন্নয়নের মৃত্যুকূপে জনজীবন/নুশরাত শীর্ষক এই আলোচনা সভার আয়োজন করে আওয়াজ নামে একটি মানবাধিকার সংগঠন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বগুড়া থেকে নির্বাচিত এই জনপ্রতিনিধি বলেন, যারা এ ধরনের সংবাদ পরিবেশন করছেন তারা আমার সঙ্গে কথা না বলেই করছেন।

গণমাধ্যমের সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, পত্রিকায় দেখলাম আমি নাকি শপথ নেয়ার জন্য সময় চেয়ে সংসদে আবেদন করেছি। বিষয়টি সঠিক নয়। আমি কোনো আবেদন করিনি।

নীতি বজায় রেখে সাংবাদিকদের বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশের আহ্বান জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, একটি পত্রিকা লিখেছে- মির্জা ফখরুলের সংসদে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। আমি যদি শপথ না নিই সে ক্ষেত্রে কী হবে? আপনার সাংবাদিকতা কোথায় যাবে? তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ- রিপোর্ট করার আগে ‘জার্নালিস্ট ইথিকস’ বজায় রাখবেন। সঠিক সংবাদ প্রকাশ করবেন।

‘একটি গণমাধ্যম গতকাল আমার সঙ্গে কথা বলেছে। আমি যে বক্তব্য দিয়েছি সেটি ছেপেছে। আবার এও লিখেছে যে, আমি শপথ নিতে পারি। এটিকে আপনি কি বলবেন? হয় অজ্ঞতা না হয় উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।’

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা যে শপথ নিয়েছি এর জন্য অনেকে অনেক মন্তব্য করেছেন। কিন্তু সময়ই প্রমাণ করবে শপথ নেয়াটা সঠিক সিদ্ধান্ত কি-না। আগে আমরা শপথ নেইনি তার মানে এখন নেব না তাতো হতে পারে না। আজকে যে শপথ নিয়েছি সেটা ভয়াবহ দানবকে পরাজিত করার জন্যই নিয়েছি।

তিনি বলেন, সবাই শপথ নিয়েছে কিন্তু আমি শপথ নিইনি, এটা আমাদের দলের সিদ্ধান্ত। দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে কিছু হয়নি।

সরকারের সঙ্গে কোনো সমঝোতা হয়নি দাবি করে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া সমঝোতা করলে অনেক আগেই তিনি এদেশের প্রধানমন্ত্রী থাকতেন। আমরা কোনো বিদেশির পরামর্শে কিছু করিনি। আমরা চলমান রাজনীতি দেখছি। কথা বলার ন্যূনতম যে সুযোগ সেটা কাজে লাগাতে। দানবকে পরাজিত করা জন্য শপথ নিয়েছি।

 

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments