মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়া ফেরিঘাটের অ্যাপ্রোচ সড়ক প্লাবিত


সি নিউজ, মুন্সিগঞ্জ : মেঘনা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়া রুটে ফেরি পারাপারের অ্যাপ্রোচ সড়ক প্লাবিত হয়েছে। এতে এই নৌ রুটে ফেরি পারাপার ব্যাহত হচ্ছে। যে কোনো সময় বন্ধ হয়ে যেতে পারে সদ্য চালু হওয়া মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়া ফেরি সার্ভিস

সোমবার সরেজমিনে দেখা গেছে, মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়া ফেরি সার্ভিসের মেঘনা নদীর দুই পাড়ের অ্যাপ্রোচ সড়ক পানির নিচে তলিয়ে গেছে। পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় মুন্সীগঞ্জ প্রান্তের চরকিশোরগঞ্জ ঘাট গজারিয়া প্রান্তে গজারিয়া ঘাটের দুই পাড়ের অ্যাপ্রোচ সড়ক প্লাবিত হয়েছে

গত জুন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই ফেরি সার্ভিসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনের পরপরই নৌ রুটে যানবাহন পারাপার জনসাধারণের চলাচলের জন্য ফেরি সার্ভিস খুলে চালু করা হয়। তবে এই পর্যন্ত ফেরি সার্ভিসের ন্যূনতম সুফল ভোগ করতে পারেনি রুটে চলাচলকারী যাত্রীরা

মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়া রুটে ফেরী সার্ভিসে যানবাহন যাত্রী পারাপার করছে ফেরী স্বর্ণচাঁপা। ৫টি ট্রাক কিংবা ৬টি যাত্রীবাহী বাস ধারণ ক্ষমতার এই ফেরিটি প্রতিদিন মেঘনা পাড়ি দিচ্ছে। কিন্তু রোববার সকাল থেকেই মেঘনা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে দুই পাড়ের ঘাট এলাকার অ্যাপ্রোচ সড়ক প্লাবিত হয়ে পড়ে। এতে ঘাটের উভয় পাড়ে যানবাহন যাত্রীদের ফেরিতে ওঠানামায় দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে

সর্বোচ্চ দুই কিলোমিটার দূরত্বের এই নৌ রুটে ফেরিতে মেঘনা পাড়ি দেয়া সম্ভব হচ্ছে স্বল্প সময়ের মধ্যে। ফেরি সার্ভিস চালু হওয়ায় মুন্সীগঞ্জ থেকে গজারিয়ার দূরত্ব দাঁড়িয়েছে মাত্র কিলোমিটার। এর আগে মুন্সীগঞ্জ থেকে গজারিয়ায় যেতে হলে ৫০ কিলোমিটার সড়ক পথ ঘুরতে হতো যাত্রীদের

এদিকে ফেরী সার্ভিস চালু হলেও মুন্সীগঞ্জ গজারিয়া প্রান্তের সড়কের চিত্র অত্যান্ত করুণ। অসংখ্য খানাখন্দ রয়েছে সড়কজুড়েই। কোনো কোনো স্থানে রয়েছে বেশ বড় বড় গর্ত। এতে সড়ক পথে যানবাহন চলাচল খুবই কষ্টকর হয়ে পড়েছে

মুন্সীগঞ্জ-মেঘনা রুটে সিএনজি চালক মো. খোকন জানান, সড়কটি মেরামত করে আরও প্রস্তুত করলে খুব দ্রুত সময়ে সদর থেকে মেঘনা ফেরি ঘাটে আসা যেতো। যাত্রীরাও স্বাচ্ছন্দ্যে চলাচল করতে পারতো

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments