বিনোদন

মায়ের বাড়ি ছেড়েছেন সারা আলী খান


সি নিউজ ডেস্ক : বিনোদন দুনিয়ায় এসেই বেশ হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন সাইফ আলি খান ও অমৃতা সিংয়ের কন্যা সারা আলি খান। ডিসেম্বরে দুটো চলচ্চিত্র দিয়ে বলিউডে প্রবেশ তাঁর। আর নিঃসন্দেহে বলা যায়, নবাগত হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন সারা।

বেশ কয়েক দিন ধরে খবরের শিরোনাম হচ্ছেন পাতৌদির রাজকন্যা। ‘কফি উইথ করণ’-এর একটি পর্বে হাজির হয়েছিলেন তাঁর ‘ক্রাশ’ কার্তিক আরিয়ান। সেখানে তিনি বলেছেন, নবাবজাদির সঙ্গে ডেট করতে হলে অনেক টাকা-পয়সা থাকতে হবে, আর তাই ব্যাংক ব্যালান্স বাড়ানোর ওপর নজর দিয়েছেন ‘সোনু কে টিটু কি সুইটি’ তারকা।

যা হোক, এবার আরেক কারণে খবরের শিরোনাম হলেন সারা আলি খান। সম্প্রতি তাঁকে ফুলের টব থেকে শুরু করে বিপুল জিনিসপত্রসহ মায়ের বাড়ি থেকে বের হতে দেখা গেছে। হঠাৎ করেই আলোকচিত্রীদের দেখে তিনি বিস্মিত হন। কাঁধখোলা সাদা টপ আর তার সঙ্গে ম্যাচ করে শর্টস পরা সারাকে দেখে মনে হচ্ছে, তিনি ছবি তোলার মুডে ছিলেন না।

সেসব প্রশ্ন উদ্রেককারী একটি ছবি অন্তর্জালে ভাইরাল হয়েছে। ভক্তকুলে একটিই বিস্ময়কর প্রশ্ন, কোথায় চলেছেন সারা আলি খান?

প্রথম ছবি ‘কেদারনাথ’ বক্স অফিসে মোটামুটি ব্যবসা করেছে। তবে বক্স অফিসে ব্লকবাস্টার হয়েছে ‘সিম্বা’। শুধু ভারতে আয় করেছে ২৪০ কোটি রুপির বেশি। তো, মুম্বাইয়ে নতুন একটি অ্যাপার্টমেন্ট কেনার সমূহ সামর্থ্য আছে এই তরুণীর। ‘সিম্বা’ পরিচালক রোহিত শেঠি তো বলেছেনই, সুপারস্টার হওয়ার সব গুণই আছেন সারার। আর নবাবজাদিও উপভোগ করছেন তুমুল জনপ্রিয়তা।

১৯৯১ সালে অমৃতা সিংকে বিয়ে করেন সাইফ আলী খান। অমৃতা ছিলেন সাইফের থেকে ১২ বছরের বড়। পরিবারের আপত্তি থাকলেও বিয়ে করেন সাইফ। অমৃতাকে বিয়ের পর তাদের ঘরে জন্ম হয় ছেলে ইব্রাহিম আলী খান এবং মেয়ে সারা আলী খান। দুই সন্তানের জন্মের পর পরই অমৃতা সিং-এর সঙ্গে ২০০৪ সালে বিচ্ছেদ হয়ে যায় সাইফের।

দীর্ঘদিন ধরে মায়ের সঙ্গে থাকছিলেন সারা। ‘কেদারনাথ’ ও ‘সিম্বা’ ছবিতে অভিনয় দক্ষতা ও সৌন্দর্য প্রদর্শনের মাধ্যমে দর্শকদের মনে গেঁথে গেছেন সারা। তবে এখন তারকা দম্পতির এই তারকা কন্যার হঠাৎ বাড়ি ছাড়া নিয়েই যত কৌতূহল।

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments