পাকশী হার্ডিঞ্জ পয়েন্টে পদ্মার পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত


সিনিউজ: ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মালদহ ও মুর্শিদাবাদ জেলায় অবস্থিত ফারাক্কা বাঁধের ১০৯টি গেট খুলে দিয়েছে ভারত সরকার। এর ফলে পাবনার পাকশী হার্ডিঞ্জ ব্রিজ পয়েন্টে পদ্মা নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

মঙ্গলবার (১ অক্টোবর) সকাল ১০টায় পানি পরিমাপ করার পর এ তথ্য জানা গেছে।

পাবনা পানি উন্নয়ন বোর্ড হাইড্রোলজি বিভাগের উত্তরাঞ্চলীয় নির্বাহী প্রকৌশলী কে এম জহিরুল হক বলেন, ২৪ ঘণ্টায় পদ্মার পাকশী হার্ডিঞ্জ ব্রিজ পয়েন্টে পানি বেড়েছে ১৪ সেন্টিমিটার। আর সকাল ১০টায় বিপৎসীমা ১৪ দশমিক ২৫ সেন্টিমিটার অতিক্রম করে। এর আগে সকাল ৯টার দিকে পরিমাপ অনুযায়ী বিপৎসীমার এক সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছিল।

দীর্ঘ ১৬ বছর পর এই পয়েন্টে পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করল। সর্বশেষ ২০০৩ সালে এই পয়েন্টে পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করেছিল। এদিকে পানি বাড়ার ফলে নিচু এলাকায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন চরাঞ্চলের মানুষ।

ভারি বৃষ্টিপাতের জেরে সৃষ্ট বন্যা থেকে ভারতের রাজ্য বিহারের রাজধানী পাটনাসহ আরো ১২ জেলাকে রক্ষার জন্য ফারাক্কা বাঁধের ১১৯টি গেটের সব খুলে দিয়েছে ভারত।

গতকাল সোমবার ফারাক্কার সব গেট খুলে দেওয়ায় পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদের একাংশ ও বাংলাদেশে বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। মালদা জেলার ফুলহর, মহানন্দা ও কালিন্দী নদীতে পানি বাড়ছে। সেখানে একাধিক জায়গায় নদীর বাঁধ ভেঙে প্লাবিত হয়েছে বিস্তীর্ণ এলাকা। চরম বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বইছে গঙ্গা ও ফুলহর।

এরপরই রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী (চলতি দায়িত্ব চাঁপাইনবাবগঞ্জ) সৈয়দ সাহিদুল আলম বলেছিলেন, সোমবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এক দিনে ১১ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে ধারণা করা হচ্ছে, হয়তো সব গেট খুলে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া টানা বর্ষণের কারণেও পদ্মার পানি বেশি বৃদ্ধি পাচ্ছে।

তিনি জানান, বর্তমানে রাজশাহী পয়েন্টে পদ্মায় পানি প্রবাহিত হচ্ছে ১৭ দশমিক ৯৮ সেন্টিমিটারে। দুই দিনের মধ্যে বিপৎসীমা ১৮ দশমিক ৫০ সেন্টিমিটার অতিক্রম করতে পারে। এর ফলে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments