দেশজুড়ে

পাঁচ বছরে দুর্নীতির শিকড় উপড়ে ফেলব: শহিদুল ইসলাম বকুল


সি নিউজ ডেস্ক : পাঁচ বছরে লালপুর-বাগাতিপাড়ায় দুর্নীতির শিকড় উপড়ে ফেলবো। আমি জনগনের সেবা করার জন্য এমপি হয়েছি। দুর্নীতিবাজদের প্রশ্রয় দিয়ে টাকা ইনকাম করার জন্য এমপি হয়নি।

আমি ভোটের আগেও দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর ছিলাম এখনও দুর্নীতির বিরুদ্ধেই আছি। আমি বিশ্বাস করি নিজের অন্য খেয়ে অন্যের উপকার করার নাম রাজনীতি। রাজনীতি করে, থানার দালালী করে টাকা ইনকামের নাম রাজনীতি নয়।

যারা বিশ্বাস করেন নিজের অন্য খেয়ে বনের বাঘ তাড়ার নাম রাজনীতি একমাত্র তারাই রাজনীতি করতে আসবেন। থানার দালালী করে, পারিবারিক কলহ মীমাংসার নামে উভয়ের কাছে টাকা খাওয়া, সরকারীর সুবিধার আওয়াতায় থাকা গরিবের ত্রানের টিন, বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, স্বামী পরিত্যাক্তা ভাতার কার্ড করে দেওয়ার নাম করে টাকা খেয়ে নিজেকে রাজনীতিক পরিচয় দিবেন।

তাহলে জাতির জনক টুঙ্গিপাড়ার কবরস্থান থেকে আপনাদের অভিশাপ দিবে, ত্রিশ লক্ষ শহীদ আপনাদের অভিশাপ দিবে। আপনারা দালাল, দুর্নীতিবাজ, ঘুষখোর হয়ে রাজনীতিবিদের মতো মহান পেশাকে কলুষিত করলে তাদের আত্মা কষ্ট পায়। রাজনীতিবিদদের কারনেই আমরা আজ স্বাধীন রাষ্ট্র পেয়েছি।

আপনারা নিজেদের রাজনীতিবিদ পরিচয় দিয়ে কুকর্ম করলে সে দায় আওয়ামীলীগ নিবে না। সরকার দুর্নীতিবাজদের কঠোর হাতে দমন করার অঙ্গীকার করেছে। আমি জননেত্রী শেখ হাসিনার ক্ষুদ্র কর্মী হিসেবে শেখ হাসিনার নির্বাচনী অঙ্গীকার বাস্তবায়নের জন্য যা যা করার দরকার তায় করবো।

পাঁচ বছরে আমার নির্বাচনী এলাকায় দুর্নীতির শিকড় উপড়ে ফেলবো। এর জন্য যদি আমার প্রানও যায় তাও পিছপা হবোনা। শনিবার দুপুরে লালপুর উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে কৃষকদের মাঝে আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরন, উপজেলা পরিষদের সম্প্রসারিত ভবনের উদ্বোধন ও জাতীয় ভিটামিন এ ক্যাপুসল বিতরন অনুষ্ঠানের আগে বক্তব্য প্রদানকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ পাপ্পু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দ্যুতি, কৃষি অফিসার রফিকুল ইসলাম সহ আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ।
 

 

Admin

0 Comments

Please login to start comments