জাতীয়

পলাশের সঙ্গে ৮ মাস যেমন ছিলেন সিমলা, জানালেন সাড়ে ৩ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদে


সিনিউজ: খেলনা পিস্তল উঁচিয়ে বিমানের একটি বোয়িং-৭৩৭ উড়োজাহাজ ছিনতাই করতে গিয়ে চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরে কমান্ডো অভিযানে নিহত পলাশ আহমেদের সঙ্গে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী অভিনেত্রী সামসুন নাহার সিমলার সংসার ছিল মাত্র ৮ মাসের। বয়সের পার্থক্য ২০ বছর হলেও চতুর পলাশের পৈত্রিক সম্পত্তির বানোয়াট বিবরণ ও বাকচাতুর্য্যে মুগ্ধ হয়ে ম্যাডাম ফুলিখ্যাত এই নায়িকা। বিয়ের পর অল্পসময়েই কেটে যায় তার মোহ, পলাশের ভন্ডামি ও অসংলগ্ন আচরণে বিরক্ত হয়ে সিমলা সংসার জীবনের ইতি টানেন।

বৃহস্পতিবার ( ১২ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের জিজ্ঞাসাবাদে পলাশের সঙ্গে আট মাস সংসার করার নানা ঘটনা বলতে গিয়ে এসব বিষয় তুলে ধরেন। অসম দাম্পত্যজীবনের বিভিন্ন ঘটনা বলতে সিমলা সময় নেন দীর্ঘ সাড়ে তিন ঘণ্টা। গত ফেব্রুয়ারি মাসে চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে বিমান ছিনতাই ঘটনার মামলায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তা রাজেশ বড়ুয়ার জিজ্ঞাসাবাদে বিমান ছিনতাই চেষ্টাকারী পলাশ আহমেদর সঙ্গে তার দাম্পত্য জীবন, বিচ্ছেদ ও নানা প্রসঙ্গে কথা বলেছেন ঢালিউডের জনপ্রিয় একসময়ের জনপ্রিয় এই নায়িকা।

সিমলাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে জানতে চাইলে তদন্ত কর্মকর্তা রাজেশ সাংবাদিকদের বলেন, পলাশের সঙ্গে পরিচয়, বিয়ে, জটিলতার সূত্রপাত এবং বিচ্ছেদ নিয়ে বিস্তারিত বিবরণ দিয়েছেন সিমলা। তিনি আমাদের বেশ কিছু তথ্য দিয়েছেন। তবে এসব তথ্য যাচাই বাছাই করতে হবে।

তদন্ত কর্মকর্তা আরও বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে এই অভিনেত্রী বলেছেন, ২০১৭ সালের ১২ সেপ্টেম্বর গুলশানের একটি কফি শপে এক প্রযোজকের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে পলাশের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। তিনি সে সময় জেনেছিলেন, পলাশ থাকেন ইংল্যান্ডে, দেশে সিনেমার প্রযোজনার সঙ্গে তিনি জড়িত। ওই অনুষ্ঠানেই দুজনের মধ্যে মোবাইল নম্বর দেওয়া নেওয়া হয়। তারপর বিভিন্ন সময়ে দেখা হয় দুজনের। এক পর্যায়ে পলাশকে বিয়ের প্রস্তাব দেয় সিমলা। ২০১৮ সালের ৬ মার্চ পরিবারকে না জানিয়েই বিয়ে করেন তারা দুজন। ওই বছরের ৫ নভেম্বর পলাশকে তালাকের নোটিস পাঠান সিমলা।

তদন্তকারীদের সিমলা বলেছেন, পলাশ শুরুতে নিজেকে ব্রিটিশ পাসপোর্টধারী হিসেবে পরিচয় দিয়েছিলেন; বলেছিলেন, তার বাবা ইংল্যান্ডে ব্যবসা করেন। উত্তরায় তাদের বাড়ি আছে, যেখান থেকে ভাড়া পান। পাশাপাশি নারায়ণগঞ্জে তাদের একটি ডুপ্লেক্স বাড়ি বানানো হচ্ছে। তবে বিয়ের কয়েক মাস পর সিমলা জানতে পারেন- ‘সব মিথ্যা’।

পুলিশ কর্মকর্তা রাজেশ বড়ুয়া জানান, পলাশের ‘প্রতারণার’ বিবরণ দিতে দিতে এক পর্যায়ে কাঁদতে কাঁদতে সিমলা জানান পরিচয়ের সময় তিনি পলাশকে চিনতেন মাহিবি জামান নামে। পরে জানতে পারেন, তার নাম পলাশ। প্রথমে শুনেছিলেন, ভালো ভালো কয়েকটি প্রযোজনা করেছে মাহিবি। তাই বয়সে ছোট হওয়ার পরও পলাশকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। বিয়ের পর উন্মোচিত হতে থাকে তার আসল চেহারা।

তদন্তকারী কর্মকর্তা রাজেশ বড়ুয়া জানান, বিমান ছিনতাই চেষ্টার এই মামলায় সিমলাসহ মোট ৪২ জনের সাক্ষ্য-প্রমাণ নেওয়া হয়েছে। প্রয়োজনে সিমলাকে আবারো জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে ।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সিমলা সাংবাদিকদের বলেন, গত ২৫ আগস্ট ভারতের মুম্বাই থেকে আমি ঢাকায় আসেন। তদন্তকারী কর্মকর্তারা আমাকে চট্টগ্রামে এসে বক্তব্য দিতে বলেন। তাই আজকে এখানে আসা তাকে কি কি বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে জানতে চাইলে সিমলা বলেন, পুলিশ মূলত পলাশের সঙ্গে তার পরিচয় ও বিয়ে সম্পর্কে জানতে চেয়েছে। তিনি আরো জানান, বিমান ছিনতাইচেষ্টার ঘটনার আগে তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। তাই তিনি সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানেন না। কেননা, বিচ্ছেদের পর থেকে পলাশের সঙ্গে তার কোনো যোগাযোগ ছিলো না বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উড়োজাহাজ ‘ছিনতাইয়ের চেষ্টা’ করার সময় কমান্ডো অভিযানে পলাশ আহমেদ নিহত হন।

Admin

0 Comments

Please login to start comments