বাংলাদেশ

নকল তারে বাড়ছে শর্ট সার্কিটের অগ্নিকান্ড


সি নিউজ ডেস্ক : রাজধানীতে অগ্নিকান্ডের ঘটনার ৭০ থেকে ৮৫ শতাংশেরই কারণ হিসেবে শর্ট সার্কিটকে দায়ী করা হয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভবন নির্মাণে অতি মুনাফার আশায় নিম্নমানের তার ও অন্য সরঞ্জাম ব্যবহার করায় শটর্ সার্কিটের দুর্ঘটনা বাড়ার কারণ।

এদিকে কাপ্তান বাজারে গিয়ে প্রতিটি দোকানেই দেখা যায় নকল বৈদ্যুতিক তার। নবাবপুরের কাপ্তান বাজার। দেশের সবচেয়ে বড় বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম বিকিকিনির এই এলাকার প্রতিটি দোকানেই পাওয়া যায় স্বনামধন্য ক্যাবল কোম্পানির নকল বৈদ্যুতিক তার।

এমনকি কোনো কোনো দোকানে কোম্পানির স্টিকার দেয়া থাকলেও সে স্টিকারও নকল করে সাঁটানো হয় তারের কয়েলে। এমনকি সময়ের টিমও ধোঁকা খেয়ে যায় আসল নকলের প্রশ্নে। এসব নকল তারের ভোক্তা কারা এমন প্রশ্নে বিক্রেতারা জানান, যেসব কোম্পানি ভবন নির্মাণের দায়িত্বে থাকেন, তারাই অতি লাভের আশায় মানের সাথে সমঝোতা করেন।

অন্যদিকে নিখুঁতভাবে নকল হওয়ায় মূল ভোক্তাও বুঝতে পারেন না আসল নকলের ফারাক। বিক্রেতারাও জানান, এসব নকল তারে শর্ট সার্কিটের ঝুঁকি বেশি। বিক্রেতারা বলেন, এক নম্বর, দুই নম্বর, তিন নম্বর যাই বিক্রি হয় শো রুমে, কারখানা তা বিক্রি করবে না।

অরিজিনাল নিলে ঠকার সম্ভাবনা থাকতে পারে দু’নম্বর দিয়ে দিবে। কিন্তু দু’নম্বর নিলে ঠকার সম্ভাবনা থাকে না। 

বিষয়টি নিয়ে বুয়েটের ইলেক্ট্রিক্যাল ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে গেলে তারা জানান, মানসম্পন্ন তারে উল্লেখ থাকা মান, নকল তারের ক্ষেত্রে মানা হয় না।

ফলে যে অ্যাম্পিয়ার বা লোড নেয়ার ক্ষমতা তারের থাকতে হয় তা না থাকায় অধিক লোডের বৈদ্যুতিক জিনিস ব্যবহারের কারণে শর্ট সার্কিটের ঘটনা ঘটে।

বুয়েটের ইলেক্ট্রিক্যাল ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং এর বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মোঃ শফিকুর ইসলাম বলেন, আমরা যখন একটা বিল্ডিং করি তখন ক্যালকোলেশন করেই আমাদের ক্যাবল চয়েস করতে হয়। আমরা সার্কিট টেস্ট করি, টেস্ট করে এমন সার্কিট পেয়েছি যে নিজেই সে পুড়ে যাচ্ছে কিন্তু সার্কিট ব্রেক করতে পারছে না। 

এদিকে নিরাপদ নগরায়নে শুধু ভবন মানসম্মত ব্রৈ্যুতিক সংযোগ থাকা নিশ্চিত করলেই হবে না, যারা ভবন পরিদর্শন করেন, তাদের বৈদ্যুতিক তারের ব্যবহার ও নিরাপত্তার দিকটিতেও গুরুত্ব দিতে হবে বলে মনে করেন এই নগর পরিকল্পনাবিদ।

নগর পরিকল্পনাবিদ স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন বলেন, দেখানোর জন্য আমরা সুযোগ-সুবিধাগুলো দিচ্ছি আর পিছনে অংক কষছি।

দেখানো হচ্ছে বিল্ডিংগুলোতে তারের সাইজ, সংযোগ ১শ’ ভাগ কিন্তু করা হয়েছে ৫০ ভাগ। ঢাকা শহরের নামি দামি বিভিন্ন বিল্ডিং এ সাবষ্টেশনে আগুন লেগেছে।  

পাশাপাশি এসব অবৈধ নকল বৈদ্যুতিক ক্যাবল তৈরির কোম্পানিগুলোকে আইনের আওতায় আনার পরামর্শ তাদের।

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments