জাতীয়

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা সম্পন্ন


সিনিউজ: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ সম্মান শ্রেণির ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শেষ হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৬টি কেন্দ্রে পরীক্ষা শুরু হয়। শেষ হয় বেলা সাড়ে ১১টায়।

এবার এক হাজার ২৫০ আসনের জন্য ২৮ হাজার ৯৫৮ জন আবেদন করেন। প্রতি আসনের জন্য লড়ার কথা ২৩ জনের। তবে কতজন পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন তা জানা যায়নি। গত বছর সমান সংখ্যক আসনের বিপরীতে আবেদন করেছিলেন ২৬ হাজার ৯৬০ জন।

এ বছর ভর্তি পরীক্ষায় বড় ধরনের পরিবর্তন এসেছে। এবার প্রথম নৈর্ব্যক্তিক পরীক্ষার পাশাপাশি লিখিত পরীক্ষা নেয়া হয়। নৈর্ব্যক্তিক অংশ করা হয় ৭৫ নম্বর এবং লিখিত ৪৫ নম্বর।

১২০ নম্বরে পরীক্ষায় শিক্ষার্থীরা সময় পান দেড় ঘণ্টা। এর মধ্যে নৈর্ব্যক্তিক অংশের জন্য ৫০ মিনিট এবং লিখিত পরীক্ষার জন্য সময় দেওয়া হয় ৪০ মিনিট। প্রতিটি প্রশ্নের মান ছিল ১.২৫। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা হবে।

গত দুই বছর প্রশ্নফাঁস ও ভর্তি জালিয়াতির ঘটনা ঘটায় এবার সর্বোচ্চ সতর্ক ছিল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নের ধরন পরিবর্তন, আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সংখ্যা বাড়ানো, কেন্দ্রের মধ্যে পরীক্ষার্থী ছাড়া অন্যদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি ইত্যাদি পদক্ষেপ নেওয়া হয়।

ভর্তি পরীক্ষার নিরাপত্তা ও পরিচালনার বিষয়ে ঢাবির প্রক্টর অধ্যাপক একেএম গোলাম রব্বানী বলেছিলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিষয়ে আমরা যথেষ্ট সতর্কতা অবলম্বন করেছি। তিনি বলেন, সকল ধরনের অপরাধ রুখতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন পুলিশ, গোয়েন্দা টিম, প্রক্টরিয়াল টিম ও বিএনসিসি কাজ করছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে যাতে কোনো ধরনের অপ্রত্যাশিত ঘটনা না ঘটে সে জন্য আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা কাজ করছে। কোনো ধরনের ভর্তির জালিয়াত যেন না হয় সে বিষয়ে আমরা এখন পর্যন্ত নিশ্চিত করতে পারছি। বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা আমরা দেব। এবার আমরা ভর্তি পরীক্ষায় ভর্তি জালিয়াতির জন্য জিরো টলারেন্স ঘোষণা করছি।

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments