লাইফস্টাইল

টবে ঢেঁড়স চাষ


সি নিউজ ডেস্ক:  ঢেঁড়স শুষ্ক এবং আর্দ্র অবস্থায় ভালো জন্মে। বাংলাদেশের আবহাওয়ায় প্রায় সারা বছরই ঢেঁড়স চাষ করা সম্ভব। দো-আঁশ ও বেলে দো-আঁশ মাটি ঢেঁড়স চাষের জন্য উপযোগী। যে কোনো শাক-সবজি উৎপাদনের জন্য জমিই উত্তম স্থান ।

কিন্তু আমরা যারা শহরে বাস করি তাদের তো ছাদ কিংবা বারান্দাই ভরসা। আর ছাদে বিভিন্ন শাকসবজি চাষ করে অনায়াসে পরিবারের চাহিদা মিটানো সম্ভব।
সহজে ছাদে চাষ করা যায় তেমনি একটি সবজি হলো এই ঢেঁড়স।

বাড়ির ছাদে ছোট ছোট মাটির টব, হাফ ড্রাম, কাঠের বাক্স, সয়াবিন তেলের ৫ লিটারের খালি কন্টেইনার এমনকি আটার পলিথিনের প্যাকেটেও ঢেঁড়সের চাষ করা যায়।

ভালো ফলনের জন্য টবের মাটি উত্তমভাবে প্রস্তুত করতে হবে। একটি ১০-১২ ইঞ্চি টবের জন্য সমপরিমান বেলে-দোঁআশ মাটি ও গোবরের সঙ্গে ৫ গ্রাম টিএসপি ও ৫ গ্রাম পটাশ সার ভালোভাবে মিশাতে হবে।

৮-১০ দিন পর মাটি পুনরায় ওলট পালট করে ঝুর ঝুরে করে টবে দিতে হবে। টবে মাটি দেয়ার পর আরও ৫-৬ দিন পর ঢেঁড়সের বীজ লাগানোর জন্য উপযুক্ত হবে ।

বীজ টবে লাগানোর ১৫-১৬ ঘণ্টা আগে পানিতে ভিজিয়ে তারপর লাগাতে হবে। যদিও সারা বছরই ঢেঁড়সের চাষ সম্ভব কিন্তু ফেব্রুয়ারি থেকে জুন মাস ভালো ফলনের জন্য উপযুক্ত সময়।

বীজ লাগানোর পর গাছ একটু বড় হলে গাছ প্রতি অর্ধেক চা চামচ ইউরিয়া এবং অর্ধেক চা চামচ পটাশ সার গাছের গোড়া থেকে একটু দূরে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিতে হবে।

কয়েক দিন অন্তর অন্তর নিয়মিত পানি দিতে হবে। টবে যেন আগাছা জন্মাতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। গাছের পুরনো হলুদ বর্ণের পাতাগুলো কেটে দিতে হবে।

ফল ছিদ্রকারী পোকার আক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে মাঝে মাঝে ম্যালাথিয়ন জাতীয় কীটনাশক ব্যবহার করা যেতে পারে। ঢেঁড়স গাছ সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয় মোজাইক রোগে।

এই রোগ হলে পাতা হলদে হয়ে কুকড়িয়ে যায়। এক গাছে রোগ হলে খুব দ্রুত অন্য গাছেও তা ছড়িয়ে পড়ে।

কোনো একটি গাছ আক্রান্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সেই গাছ তুলে এনে আগুনে পুড়ে ফেলতে হবে।

 

Admin

0 Comments

Please login to start comments