রাজনীতি

জামায়াতের ২৫ জনের প্রার্থিতা বাতিলের আবেদন নাকচ


সি নিউজ ডেস্ক: জামায়াতে ইসলামীর ২৫ জন প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে করা আবেদন নাকচ করে দিয়েছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি খায়রুল আলমের বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

তবে ওই প্রার্থীদের প্রার্থিতা বাতিলের সুযোগ নেই উল্লেখ করে নির্বাচন কমিশনের দেওয়া চিঠি কেন অবৈধ ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে আদালত রুল জারি করেছেন।

ওই ২৫ প্রার্থীর আইনজীবী রুহুল কুদ্দুস কাজল জানিয়েছেন, আদালতের এই সিদ্ধান্তের ফলে তাদের নির্বাচনে অংশ নিতে আর কোনো বাধা নেই।

এর আগে বুধবার তাদের প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের সভাপতি সৈয়দ রেজাউল হক চাঁদপুরীসহ চারজন বাদী হয়ে এ রিট করেন।

গতকাল বাদীদের আইনজীবী ব্যারিস্টার তানিয়া আহমেদ জানান, জামায়াত প্রার্থীদের প্রার্থিতা বাতিলে চেয়ে করা আবেদন নিষ্পত্তি করে ইসি যে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন তারও বৈধতা চ্যালঞ্জ করা হয়েছে এ রিটে।

এর আগে গত ২৩ ডিসেম্বর আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৫টি আসনে জামায়াত নেতাদের প্রার্থিতা বহালের সিদ্ধান্ত বহাল রাখে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এদিন কমিশন সভার পর ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, এ প্রার্থীদের প্রার্থিতা বাতিলের আইনগত কোনো সুযোগ নেই।

জামায়াত সদস্যদের ২২ জন বিএনপির ‘ধানের শীষ’ প্রতীক এবং অন্য তিনজন ‘স্বতন্ত্রভাবে’ আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

গত ১৮ ডিসেম্বর তিন কার্যদিবসের মধ্যে জামায়াতে ইসলামীর ২৫ জন সদস্যের প্রার্থিতা বাতিলের জন্য করা আবেদনের নিষ্পত্তি করতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। নির্বাচনে ওই প্রার্থীদের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে একটি রিট দায়ের করেন চার ব্যক্তি।

হাইকোর্ট ২০১৩ সালের ১ আগস্ট নির্বাচন কমিশন থেকে জামায়াতের নিবন্ধন বাতিল করে রায় দেন। এর পর ইসি চলতি বছরের ২৯ নভেম্বর চূড়ান্তভাবে নিবন্ধন বাতিল করে প্রজ্ঞাপন জারি করে।

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments