জাতীয়

জন্মাষ্টমী ঘিরে রাজধানীতে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা


সিনিউজ: সনাতন হিন্দুধর্মের প্রবর্তক ও প্রাণপুরুষ মহাবতার পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মদিন বা শুভ জন্মাষ্টমী আজ শুক্রবার। দিনটি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম প্রধান উৎসব। শ্রীকৃষ্ণের জন্মদিন ও জন্মাষ্টমী শোভাযাত্রা ঘিরে কঠোর নিরাপত্তা বলয় গড়ে তুলেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। এছাড়া এ উৎসব ঘিরে পুরো রাজধানীজুড়েই পুলিশের বাড়তি সতর্কতাও রয়েছে। 

শুক্রবার (২৩ আগস্ট) সরকারি ছুটির দিন। দিনটি উদযাপনে বিভিন্ন ধর্মীয়, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। জন্মতিথি উপলক্ষে বিকেল ৩টায় জাতীয় মন্দির ঢাকেশ্বরী থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হবে। নগরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে শোভাযাত্রাটি পুরান ঢাকার বাহাদুর শাহ পার্কে গিয়ে শেষ হবে। দিবসটি ঘিরে রাজধানীতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

ডিএমপি পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, জন্মাষ্টমী উদযাপনকে কেন্দ্র করে কোনও ধরনের হামলার হুমকি নেই। তবে, সার্বিক বৈশ্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় এবার জন্মাষ্টমীতে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) যুগ্ম কমিশনার কৃষ্ণপদ রায় ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ‘শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মদিন (জন্মাষ্টমী) উপলক্ষে ডিএমপি পুলিশের কঠোর নিরাপত্তা দেয়া হচ্ছে। জন্মাষ্টমীতে কোনও ধরনের হুমকি নেই। আমাদের পুলিশ বাহিনী ঢাকা শহরকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলেছে।’ 

তিনি বলেন, ‘জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে ভলান্টিয়ার (স্বেচ্ছাসেবক) ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের পরামর্শ মেনে চলার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। যদি কাউকে সন্দেহ মনে করা হয় তৎক্ষনাৎ পুলিশকে খবর দেয়ার জন্যও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।’

এ ব্যাপারে র‍্যাব সদর দফতরের সিনিয়র এএসপি মিজানুর রহমান ব্রেকিংনিউজকে জানান, পুলিশের পাশাপাশি র‍্যাব সদস্যরাও জন্মাষ্টমী উপল্লক্ষে কঠোর নিরাপত্তা দিচ্ছে। রাজধানীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) পক্ষ থেকে উচ্চঃস্বরে গান না বাজানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া শোভাযাত্রা চলাকালীন সড়কের আশপাশের দোকান বন্ধ রাখার জন্য বলা হয়েছে। জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রা ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির থেকে পলাশী মোড়-জগন্নাথ হল-কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার-দোয়েল চত্বর-হাইকোর্ট বটতলা-সরকারি কর্মচারী হাসপাতাল-গোলাপশাহ মাজার-বঙ্গবন্ধু স্কয়ার-গুলিস্তান (সার্জেন্ট আহাদ পুলিশ বক্সের সামনে)-নবাবপুর রোড-রায়সাহেব বাজার মোড় হয়ে বাহাদুর শাহ পার্কে যাবে। বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত এসব সড়কে যানবাহন চলাচল পরিহারের পরামর্শ দিয়েছে ডিএমপি।

এছাড়া শোভাযাত্রা নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা বলবৎ এর উদ্দেশে নিম্নোক্ত নিরাপত্তা নির্দেশনাবলি সকলকে মেনে চলার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে:

১। উল্লেখিত জন্মাষ্টমীর রুটে কোনো ধরনের যানবাহন পার্কিং না করতে অনুরোধ করা হলো।

২। রুট এলাকার আশপাশের সকল দোকান শোভাযাত্রা চলাকালীন বন্ধ রাখতে অনুরোধ করা হলো।

৩। উচ্চস্বরে পিএ/সাউন্ড সিস্টেম না বাজানোর জন্য অনুরোধ করা হলো।

৪। শোভাযাত্রায় প্রারম্ভিক অবস্থা থেকে মিলিত হতে হবে। কোনক্রমেই শোভাযাত্রার মাঝপথ দিয়ে কোনো ব্যক্তি শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না।

৫। নিরাপত্তার স্বার্থে হ্যান্ড ব্যাগ, ট্রলি ব্যাগ, বড় ভ্যানিটি ব্যাগ, পোটলা, দাহ্য পদার্থ, ছুরি, অস্ত্র, কাঁচি, ক্ষতিকারক তরল, ব্লেড, দিয়াশলাই, গ্যাসলাইট ইত্যাদি সাথে নিয়ে শোভাযাত্রায় অংশ নেওয়া যাবে না।

৬। শোভাযাত্রা চলাকালীন রুটে কোনো ধরনের ফলমূল ছোড়া যাবে না।

৭। শোভাযাত্রা চলাকালীন রাস্তায় অহেতুক দাঁড়িয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা যাবে না।

৮। সন্দেহজনক কোনো ব্যক্তি বা বস্তু পরিলক্ষিত হলে তাৎক্ষণিক নিকটস্থ পুলিশকে অবহিত করুন।

৯। শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে ভলান্টিয়ার (স্বেচ্ছাসেবক) ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের পরামর্শ মেনে চলার জন্য অনুরোধ করা হলো।

১০। ব্যারিকেড, পিকেট ও আর্চওয়ে ব্যবস্থাপনায় নিয়োজিত পুলিশকে দায়িত্ব পালনে সহযোগিতা করুন।

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments