জাতীয়

ছাত্রীকে যৌন হয়রানির দায়ে জাবি শিক্ষককে অব্যাহতি


সিনিউজ: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) সরকার ও রাজনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সানওয়ার সিরাজকে একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম থেকে সাময়িকভাবে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ফারজানা ইসলাম বিশেষ ক্ষমতাবলে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ।

তিনি বলেন, অভিযোগকারী ছাত্রীর অভিযোগ আমলে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন বিরোধী সেল তদন্ত কাজ শুরু করেছে এবং একটি সুপারিশ দিয়েছে। সুপারিশে শিক্ষক সানওয়ার সিরাজকে তদন্ত চলাকালে সব ধরনের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কাজ থেকে সাময়িকভাবে বিরত থাকতে বলেছে। উপাচার্য এই সুপারিশে অনুমোদন দিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন বিরোধী সেলের প্রধান অধ্যাপক রাশেদা আক্তার বলেন, আমরা যৌন হয়রানির অভিযোগটি আমলে নিয়ে তদন্ত কাজ শুরু করেছি। তদন্ত কাজের শুরুতেই সেলের বিধি অনুযায়ী আমরা ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে একাডেমিক ও প্রশাসনিক কাজ থেকে সাময়িকভাবে বিরত থাকার সুপারিশ দিয়েছি।

এই সিদ্ধান্তের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে যোগাযোগ করা হলে ফোন ধরেননি শিক্ষক সানওয়ার সিরাজ। যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠার পর থেকেই তিনি কারো ফোন ধরছেন না।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, সরকার ও রাজনীতি বিভাগের ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে একই বিভাগের নারী শিক্ষার্থীকে দীর্ঘদিন ধরে ‘অনৈতিক প্রস্তাব’ ও তাতে সাড়া না দেওয়ায় একটি কোর্সে নম্বর কম প্রদানসহ বেশ কিছু অভিযোগে উঠেছে। পরে এ ঘটনায় ঐ শিক্ষার্থী ‘আত্মহত্যার’ চেষ্টাও করেছেন। সহপাঠী ও আবাসিক শিক্ষার্থীদের সহায়তায় ওই নারী শিক্ষার্থীকে সাভারের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে ১৮ ঘণ্টা নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয় এবং তিনদিন পর গত ২৬ সেপ্টেম্বর শিক্ষার্থী বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক সূত্র জানিয়েছে, অভিযোগের পরপরই আত্মগোপন করেছেন সরকার ও রাজনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সানওয়ার সিরাজ।

এদিকে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিচারের দাবিতে সোচ্চার সাধারণ শিক্ষার্থীরা। অভিযুক্ত শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করে মানববন্ধন করেছেন শিক্ষার্থীরা। পাশাপাশি এ বিষয় নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমসহ সকল মহলে করছেন আলোচনা-সমালোচনা। ফেসবুকে অভিযুক্ত শিক্ষকসহ ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টাকারী সকলের বিচারের দাবি করেছেন তারা।

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments