আন্তর্জাতিক

চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ২শ’র বেশি শিশু ধর্ষণের অভিযোগ


শিশুদের ওপর যৌন নির্যাতনের পরিসংখ্যান দিনদিন ভারীই হচ্ছে৷ এবার অবসরপ্রাপ্ত এক শল্য চিকিৎসকের বিরুদ্ধে দু'শোরও বেশি শিশুর উপর যৌন নির্যাতন চালানোর অভিযোগ উঠেছে।

প্রথমে ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল চার নাবালিকাকে ধর্ষণ ও যৌন নিগ্রহের। পরে তদন্তে সামনে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য!

চাঞ্চল্যকর এ অভিযোগ উঠছে ফ্রান্সের এক অবসরপ্রাপ্ত শল্য চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত চিকিৎসকের নাম জোয়েল লে স্কোয়ারনেক, বয়স ৬৮। প্রথমে ২০১৭ সালে স্কোয়ারনেকের বিরুদ্ধে প্রতিবেশী এক শিশুকে ধর্ষণ ও যৌন নিগ্রহের অভিযোগ ওঠে। পাশপাশি আরও দুই নাবালিকা ও এক তরুণীকে যৌন নিগ্রহের ঘটনায় নাম তার জড়ায় । এই সব অভিযোগের ভিত্তিতে স্কোয়ারনেকের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়। এই তদন্তে স্কোয়ারনেকের কতগুলি গোপন ডায়রি হাতে পান তদন্তকারীরা। আর তখন জানা যায়, চার জন নাবালিকা নয়, দু'শোরও বেশি শিশুর উপর যৌন নির্যাতন চালিয়েছেন স্কোয়ারনেক।

গত সোমবার ‘সিটি অব লা রোচেল’-এর সরকারি কৌঁশুলি বলেন, দ্বিতীয় পর্যায়ের তদন্তে এমন ২৫০ জন শিশু বা নাবালিকার নাম সামনে এসেছে যারা স্কোয়ারনেকের যৌন নির্যাতনের শিকার। স্কোয়ারনেকের বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগগুলি অন্তত আড়াই-তিন দশক পুরনো। ২৫০ জনের মধ্যে ১৮১ জন যাঁরা সেই সময় শিশু বা নাবালিকা ছিলেন, তারাও স্কোয়ারনেকের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন।

স্কোয়ারনেকের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের শতাধিক লিখিত অভিযোগ ছাড়াও অভিযুক্তের বাড়ি থেকে শিশু পর্নোগ্রাফির ছবি, ভিডিও আর সেক্স টয়ও উদ্ধার হয়েছে। আগামী মার্চ মাস মাস থেকে অভিযুক্তের বিচার শুরু হতে চলেছে। জানা গেছে, অভিযোগ প্রমাণিত হলে ২০ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে জোয়েল লে স্কোয়ারনেকের।

 

সিনিউজ ডেস্ক

0 Comments

Please login to start comments