বাংলাদেশ

চালের দাম ঊর্ধ্বমুখী, কমেছে ভোজ্য তেল


সি নিউজ ডেস্ক:  রাজধানীর পাইকারি বাজারে আবারো বেড়েছে চালের দর। এজন্য আড়ৎদারদের গুদামজাত করার মনোভাবকেই দায়ী করছেন পাইকাররা।
নির্বাচনের আগেও টানা কয়েক মাস স্থিতিশীল ছিল চালের বাজার। তবে হঠাৎ করেই আবার অস্থির নিত্যপ্রয়োজনীয় এই পণ্যের দর।

কেজিতে ২ থেকে ৩ টাকা বেড়েছে ২৮ ও মিনিকেট চালের দাম।  পাইকারদের অভিযোগ আড়ৎ-এ চালের সংকট দেখিয়ে সরবরাহ কমিয়েছেন আড়ৎদাররা। তবে শিগগিরই দর কমার কথাও বলেছেন তারা।

অন্যদিকে, কমেছে আমদানি করা পেঁয়াজের দর। কেজিতে ৩ টাকা কমে আমদানি করা পেঁয়াজ ১৫ এবং দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২২ টাকা দরে। তবে কেজিতে ৮ টাকা বেড়ে চায়না রসুন বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা এবং চায়না আদা বিক্রি হচ্ছে ১০৫ টাকা কেজিতে।

সুখবর আছে ভোজ্যতেলের বাজারে। মান ভেদে লিটারে ৫ থেকে ১০ টাকা কমেছে সব ধরনের বোতলজাত সয়াবিন তেলের দর। তবে ৩ থেকে ৪ টাকা বেড়ে মসুর ডাল মানভেদে ৪৫ থেকে ৮০ টাকা প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে। আটা বিক্রি হচ্ছে ২৪ টাকা আর ময়দা ৩০ টাকা কেজিতে।

মসলার বাজারে এলাচ কেজিতে ৫০ টাকা বেড়ে মানভেদে ১৭৫০ থেকে ১৯০০ টাকা হলেও স্থিতিশীল রয়েছে জিরা, লবঙ্গ, কাজুবাদাম ও পেস্তাবাদামের দাম।


 

Admin

0 Comments

Please login to start comments