খেলাধুলা

গুডবাই আফ্রিদি!


সিনিউজ: বিশ্বক্রিকেটে বুমবুমখ্যাত শহিদ আফ্রিদি আর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরবেন না। বৃহস্পতিবার রাতে তিনি মাঠে নামেন বিশ্ব একাদশের হয়ে। এই ম্যাচ চলার সময়ই আফ্রিদি ঘোষণা দেন যে, অবসর ভেঙে আর ফিরবেন না তিনি! ইতোমধ্যে টি-২০ ক্রিকেটে ৯৯টি ম্যাচ খেলে ফেলেছেন আফ্রিদি। আফ্রিদির গুডবাই ঘোষণায় তাই স্বভাবতই প্রশ্ন উঠেছে, টি-২০ ক্রিকেট ম্যাচের সেঞ্চুরি কি পাবেন না আফ্রিদি?

এই ম্যাচটা অবশ্য খেলারই কথা ছিলো না শহিদ আফ্রিদির। প্রথম দফায় দলে থাকলে পায়ের ইনজুরির কারণে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেন তিনি। কিন্তু বিশ্ব একাদশের অধিনায়ক ইয়ন মরগান ইনজুরিতে পড়ায় আফ্রিদিকে আবার ডাকে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। এবার আর সাড়া না দিয়ে পারেননি তিনি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও বিশ্ব একাদশের বিশেষ এই ম্যাচকে আগেই আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল। সুতরাং এই ম্যাচ দিয়ে ২০১৬ সালের পর আবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা নিশ্চিত হয় আফ্রিদির। কিন্তু ম্যাচটা খেলার সময় আফ্রিদি জানিয়ে দেন এরপর আর ফেরা হবে না তার। বিশ্ব একাদশের হয়ে বোলিং করার সময় আফ্রিদির সঙ্গে মাঠে নেমে কথা বলেন নাসের হোসেইন। ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ককে আফ্রিদি বলেন, আর হয়তো ফেরা হবে না। আমার ইনজুরির অবস্থা ভালো নয়। গত পিএসএলের পর আর খেলতে নামিনি। দীর্ঘদিন পর আজই প্রথম বল হাতে নিলাম। এটাই আমার শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ।

আফ্রিদি তার ক্যারিয়ারে পাকিস্তানের জার্সি গায়ে ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন ৩৯৮টি, টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন ২৭টি এবং টি-২০ ম্যাচ খেলেন ৯৯টি। ৩৯৮ ওয়ানডে ম্যাচে রান করেছেন ৮ হাজার ৬৪। উইকেট নিয়েছেন ৩৯৫টি। সর্বোচ্চ বোলিং ফিগার ১২/৭, ৫ উইকেট রয়েছে ৯বার। ২৭ টেস্টের ৪৮ ইনিংসে করেছেন ১ হাজার ৭১৬ রান। সর্বোচ্চ ইনিংস ১৫৬ রান, সেঞ্চুরি রয়েছে ৫টি অর্ধশত রয়েছে ৮টি। হাত ঘুরিয়ে উইকেট নিয়েছেন ৪৮টি। সর্বোচ্চ বোলিং ফিগার ৫২/৫, ৫ উইকেট রয়েছে ১বার।

৯৯ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে করেছেন ১ হাজার ৪১৬ রান। সর্বোচ্চ ইনিংস ৫৪ রান, অর্ধশত রয়েছে ৪টি। উইকেট নিয়েছেন ৯৮টি। সর্বোচ্চ বোলিং ফিগার ১১/৪।
১৯৯৬ সালে কেনিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডেতে অভিষেক হয় আফ্রিদির। আর ২০১৮ সালে আইসিসি বিশ্ব একাদশের হয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নিজের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ খেলেন আফ্রিদি।

Admin

0 Comments

Please login to start comments