আন্তর্জাতিক

খুনের অভিযোগে মেক্সিকোতে এক শহরের সব পুলিশ গ্রেপ্তার


সিনিউজ: এক মেয়র প্রার্থীর হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত আছে সন্দেহে মেক্সিকোর ওকাম্পো শহর পুলিশের পুরো ফোর্সকে আটক করেছে মেক্সিকান ফেডারেল বাহিনী। খবর বিবিসির। বিবিসির প্রতিবেদনে জানা যায়, বৃহস্পতিবার শহরটির মেয়র প্রার্থী ৬৪ বছর বয়সী ফারনান্দো অ্যাঞ্জেলস জুয়ারেজকে গুলি করে হত্যা করে অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা। অ্যাঞ্জেলসের খুনের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রোববার ভোররাতে ফেডারেল বাহিনীগুলো ওকাম্পোর ২৭ পুলিশ কর্মকর্তার সবাইকে ও স্থানীয় সরকারি নিরাপত্তা সচিবকে আটক করে। নিহত অ্যাঞ্জেলস একজন সফল ব্যবসায়ী ছিলেন। আগে কিছুদিন রাজনীতি করেছিলেন তিনি। প্রথমে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে দাঁড়ানোর কথা ভাবলেও পরে মেক্সিকোর অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল মধ্য বামপন্থী পার্টি অব দ্য ডেমোক্রেটিক রেভ্যুলেশনে (পিআরডি) যোগ দেন তিনি। তার ঘনিষ্ঠ বন্ধু মিগেল মালাগন এল ইউনিভার্সাল সংবাদপত্রকে বলেছেন, “এত দারিদ্র, অসাম্য ও দুর্নীতি আর সহ্য করতে পারছিলেন না তিনি, তাই নির্বাচনে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।” অ্যাঞ্জেলসের হত্যাকাণ্ডের পর এর সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে ওকাম্পোর সরকারি নিরাপত্তা সচিব অস্কার গনজালেজ গার্সিয়াকে অভিযুক্ত করেন সরকারি আইনজীবীরা। শনিবার গনজালেজকে আটক করতে মেক্সিকোর কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা ওকাম্পোতে যান, কিন্তু স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তারা তাদের বাধা দেন। রোববার কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা অতিরিক্ত বাহিনীসহ ফের ওকাম্পোতে গিয়ে শহরটির পুরো পুলিশ বাহিনী ও তাদের বসকে আটক করে।

আটকের পর তাদের হাতকড়া পরিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মিচোয়াকান রাজ্যের রাজধানী মোরেলিয়ায় নিয়ে যাওয়া হয়। আটক পুলিশ কর্মকর্তারা ও গনজালেজ রাজ্যটির সংঘবদ্ধ অপরাধী গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গেও জড়িত বলে অভিযোগ সরকারি আইনজীবীদের। 

আগামী রোববার (১ জুলাই) মেক্সিকোতে সাধারণ নির্বাচন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এ পর্যন্ত দেশটিতে শতাধিক রাজনীতিক খুন হয়েছেন। মিচোয়াকান প্রদেশে এক সপ্তাহের মধ্যে অ্যাঞ্জেলসসহ তিন রাজনীতিককে খুন করা হয়েছে।

Admin

0 Comments

Please login to start comments