খেলাধুলা

কোহলির হাত ধরেই ইতিহাস গড়ল ভারত


সি নিউজ ডেস্ক:  সিরিজ শুরুর আগে অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি ক্রিকেটার ও সফলতম অধিনায়ক রিকি পন্টিং ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন ৪ ম্যাচের সিরিজে তার দেশ জিতবে ২-১ ব্যবধানে। কিন্তু প্রায় ১ মাসব্যাপী সিরিজ শেষে ফল এসেছে ২-১-ই তবে সেটি ভারতের পক্ষে।

সিরিজের প্রথম ৩ ম্যাচের মধ্যে দুটি জিতে আগের সিরিজে লিড নিয়েছিল ভারত। সিডনিতে শেষ টেস্ট জিতলে ৩-১ ব্যবধানে সিরিজ জেতার রেকর্ড করত তারা। কিন্তু বৃষ্টির কারণে ম্যাচের শেষ তিন দিন ঠিকঠাক খেলা না হওয়ায় ড্র দিয়েই শেষ হয়েছে সিরিজ।

এতে অবশ্য খুব বেশি মন খারাপের কিছু নেই ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলির। কেননা তার অধীনেই যে প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ার মাটি থেকে টেস্ট সিরিজ জেতার গৌরব অর্জন করলো ভারত। এর আগে এখনো পর্যন্ত অসিদের মাটিতে ১১টি সিরিজ খেললেও সর্বোচ্চ সাফল্য ছিলো ১৯৮১ সালে ১-১ ব্যবধানে সিরিজ ড্র করা।

সে সাফল্যকে ছাড়িয়ে এবারের ৪ ম্যাচের সিরিজটি ২-১ ব্যবধানে জিতে নিল বিরাট কোহলির ভারত। সিরিজের প্রথম ম্যাচে অ্যাডিলেড টেস্টে ৩১ রানে জয়ের পর পার্থ টেস্টে ১৪৬ রানে হেরে গিয়েছিল ভারত। তবে মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্টে ১৩৭ রানের ব্যবধানে জিতে সিরিজ জয়ের পথে এগিয়ে যায় তারা।

আর সবশেষ সিডনি টেস্ট বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় সিরিজের ট্রফি হাতে নিয়েছেন কোহলিই। ম্যাচের প্রথম ইনিংসে চেতেশ্বর পুজারা এবং রিশাভ পান্তের সেঞ্চুরিতে ৭ উইকেট হারিয়ে ৬২২ রান করেছিল ভারত। জবাবে ৩০০ রানে অলআউট হয়ে ফলোঅনে পড়ে স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ ওভার ব্যাট করে ৬ রান তুলতেই নামে বৃষ্টি। এর পর আর কোনো খেলা হয়নি।

পুরো সিরিজজুড়ে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত পারফর্ম করে সিরিজসেরার পুরষ্কার জিতেছেন চেতেশ্বর পুজারা। সিডনি টেস্টেও জিতেছেন ম্যাচসেরার পুরস্কার। সবমিলিয়ে ৪ ম্যাচে ৩ সেঞ্চুরিতে প্রায় ৭৫ গড়ে ৫২১ রান করেছেন তিনি।

Admin

0 Comments

Please login to start comments