কুকুরদের পাঁচতারা হোটেল!

কুকুরদের পাঁচতারা হোটেল!

সি নিউজ : সমাজে মানুষের সঙ্গে একই সমান্তরালে বাস করার ক্ষেত্রে কুকুর একটি অত্যন্ত বুদ্ধিমান প্রাণী। গৃহপালিত কুকুর মানুষের সবচেয়ে ভালো বন্ধু। বিজ্ঞানীদের বিশ্বাস মানুষ প্রথম যে প্রাণীটি পোষ মানিয়েছিল তা ছিল কুকুর। বর্তমান সময়ে তো কুকুর পোষা ফ্যাশনই হয়ে দাঁড়িয়েছে বিশ্বের বহু জায়গায়। চীনের মানুষেরা এক্ষেত্রে নিজেদের নিয়ে গেছে আরও কয়েকধাপ আগে। কুকুরের জন্য বিলাসবহুল হোটেল খোলা হয়েছে চীনে। সেখানে আছে সিনেমা হল, সুইমিং পুলসহ নানা বিলাসের ব্যবস্থা। কুকুরের জন্য নির্মিত বিশেষ এই পাঁচতারা হোটেলটির নাম রাখা হয়েছে ‘প্যাম্পার্ড পুচেস’।
চীনাদের নতুন ক্যালেন্ডার অনুযায়ী চলতি বছরটা হবে কুকুরদের। ফলে এই কুকুর-বর্ষে কুকুররা তো একটু বিলাসবহুল জীবন যাপনের আশা করতেই পারে। পশু অত্যাচারের জন্য চীন অবশ্য প্রায়ই পড়ে সমালোচনার মুখে। সেই জায়গাতেও এমন একটা উদ্যোগ নজর কাড়ার মতোই ব্যাপার বটে! চীনের গৃহপালিত পশুর যতেœর জন্য বিভিন্ন শিল্প ধীরে ধীরে হয়ে উঠছে পৃথিবীর বৃহত্তম পেট কেয়ার সেন্টারে।
চীনে চালু হওয়া এই কুকুর হোটেলে চার-পায়া অতিথিদের জন্য থাকছে সিনেমা হল, সুন্দর সব কক্ষ, সুইমিং পুল ইত্যাদি নানান বিলাসী সুবিধা। এখানে কর্মরত এক ব্যক্তি বলেন, ‘মনিব ও তাদের পোষা কুকুর এখানে এসে চমৎকার সময় কাটাতে পারবে। তারা একসাথে সিনেমা দেখে সময় কাটাতে পারবেন। এটি সুন্দর একটি ব্যবস্থা।’
এই সিনেমাহলে দেখানো চলচ্চিত্রগুলো কুকুরদের দৃষ্টিকোণ থেকে দেখতে ভালো লাগবে, এমনভাবেই নির্বাচন করা হয়েছে। এই মজার অভিজ্ঞতা কিন্তু মোটেও সস্তা নয়। এর জন্য গুনতে হবে প্রচুর অর্থ। চীনের বর্তমান বিলাসী গৃহপালিত পশু শিল্পের অগ্রগতির একটি নমুনা এই হোটেল।
সেখানে তার কুকুর নিয়ে বেড়াতে আসা কাস্টমার ঝ্যাং লেই বলেন, ‘আমার আত্মার শান্তির এক বড় সহকারী আমার কুকুর। ও আমার নিজের সন্তানের মতো। ওকে আনন্দ দিতে আমি মাঝে মাঝে অর্থ খরচ করতে পছন্দ করি।’
চীনে সব মিলিয়ে প্রায় ৫০ মিলিয়ন পালিত কুকুর রয়েছে। প্রাণী কল্যাণ সংস্থাগুলো বলে যে, পশু সংক্রান্ত বিষয়ে চীনের তেমন সুনাম নেই। তবে এদেশের পশু যতেœর শিল্পগুলো ধীরে ধীরে হয়ে উঠছে পৃথিবীর বৃহত্তম। ২০১৯ সাল নাগাদ এর মূল্যমান হতে পারে ২.৫ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি।