বিনোদন

এবার কাস্টিং কাউচ নিয়ে মুখ খুললেন স্বরা ভাস্বর


সিনিউজ: হলিউডের পর বলিউড পাড়ায়ও কাস্টিং কাউস নিয়ে স্বরব হয়েছেন অভিনেত্রীসহ সংস্কৃতি কর্মীরা। এ বছর তাই সিনেমা পাড়ায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল কাস্টিং কাউচ। অভিনয়ের প্রস্তাব দিয়ে শুটিং স্পটে কিংবা অন্য কোথায় নায়িকাদের ওপর পরিচালক-প্রযোজকসহ নির্মাতাদের লোলুপ দৃষ্টিই উঠে এসেছে এসব গল্পে। এবার কাস্টিং কাউচ নিয়ে মুখ খুললেন স্বরা ভাস্বর। তিনি জানালেন, প্রযোজকের ম্যানেজার তাকে চুমু খেতে চেয়েছিল।পেশাগত জগতে বরাবরই খোলামেলা স্বরা ভাস্কর। নারীবাদী হলেও ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে অনেক কঠিন পরিস্থিতি সামলাতে হয়েছে তাঁকে। খবর এ বেলার । একটি ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আড্ডায় স্বরা বলেন, এক ব্যক্তি একবার তাঁকে তাঁর বাড়ির ঠিকানা জিজ্ঞাসা করেছিলেন। এমন তো কত লোকই করে। কিন্তু এই ব্যক্তিকে স্বরা চিনতেন না। চেনা নেই, জানা নেই, তাহলে তো আর এমনি এমনি কেউ কারও থেকে বাড়ির ঠিকানা চায় না? তার উপর সে নিজের পরিচয় দিয়েছিল সে নাকি কোনও এক বড় প্রযোজকের ম্যানেজার। খটকা লেগেছিল স্বরার। তবে এখানে যদি সে থেমে যেত, তাও হত। কিন্তু নিজের গণ্ডীর বাইরে গিয়ে সে স্বরাকে ইমপ্রেস করার চেষ্টা করেছিল। স্বরা বলেছেন, ‘ওই লোকটি আমার কানে চুমু খেতে চেয়েছিল। আবার লাভ ইউ-ও বলেছিল।’ কিন্তু এমন ঘটনাকে পাত্তা দেননি স্বরা। তবে এই প্রথমবার নয়। এর আগে আরও একবার কাস্টিং কাউচ নিয়ে মুখ খুলেছিলেন স্বরা। বলেছিলেন, এক প্রত্যন্ত অঞ্চলে আউটডোর শুট চলছিল। সেখানেই পরিচালক তাঁকে দিনভর নজরে রাখতেন। রাতে ফোনও করতেন। প্রথম দিকে সে সব মেনেও নিয়েছিলেন স্বরা। কিন্তু হিতে বিপরীত হয়। এরপর একেবারে যৌন ইঙ্গিতে নেমে আসেন পরিচালক। অভিনেত্রীকে একদিন ডিনারে নিমন্ত্রণ করেন। আর একদিন ছবির দৃশ্য নিয়ে আলোচনার জন্য রাতে হোটেলের ঘরে ডেকে পাঠান। একদিনের পরিস্থিতি তো ভয়াবহ। মদ্যপ অবস্থায় পরিচালক নিজেই অভিনেত্রীর ঘরে চলে এসেছিলেন। তাঁকে জড়িয়ে ধরতে চাইছিলেন। তখন ইন্ডাস্ট্রিতে তিনি একেবারেই অপরিচিত মুখ। কৌশলে এ পরিস্থিতি এড়িয়েছিলেন স্বরা। এরকম ঘটনার পর থেকে শ্যুট শেষ হলেই ঘরে ঢুকে তিনি আলো নিভিয়ে দিতেন। অন্ধকারে বসেই মেক আপ তুলতেন। পরিচালক ভাবতেন, স্বরা বোধহয় ঘুমিয়ে পড়েছেন।

Admin

0 Comments

Please login to start comments