খেলাধুলা

আর্জেন্টিনাকে বাঁচালেন মেসি


সিনিউজ: নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষ হতে বাকি আর চার মিনিট। ম্যাচে তখন ১-১ সমতা। ম্যাচ ড্র হলেই বিশ্বকাপের গ্রুপপর্ব থেকে বাদ পড়বে আর্জেন্টিনা! এমন সময়েই ডান দিক থেকে নিচু ক্রসটা দিলেন গ্যাব্রিয়েল মেরকাদো। বক্সের ঠিক মাঝামাঝি চলে গেছেন মার্কোস রোহো। উড়ে আসা ক্রসে ডান পায়ে ভলিটা করলেন। ডান কোণা দিয়ে বল আশ্রয় খুঁজে নিল জালে। উল্লাসে ফেটে পড়ল গোটা আর্জেন্টিনা দল। টিভি সেটের সামনে বসা কোটি কোটি আর্জেন্টিনা সমর্থকও নয় কি?

রোহোর ৮৬ মিনিটের মহামূল্যবান ওই গোলই যে শঙ্কার মেঘ দূরে ঠেলে আর্জেন্টিনাকে বিশ্বকাপের শেষ ষোলোয় তুলেছে।

শেষ ষোলোয় উঠতে হলে গ্রুপের শেষ ম্যাচে মঙ্গলবার নাইজেরিয়ার বিপক্ষে আর্জেন্টিনাকে জিততেই হতো। তাকিয়ে থাকতে হতো গ্রুপের অন্য ম্যাচটার দিকেও। সেন্ট পিটার্সবার্গে আর্জেন্টিনা নাইজেরিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়ে নিজেদের কাজটা করেছে। অন্য ম্যাচে ক্রোয়েশিয়া আইসল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারানোয় ‘ডি’ গ্রুপের রানার্সআপ হিসেবে শেষ ষোলোর টিকিট নিশ্চিত হয়ে গেছে আর্জেন্টিনার। ক্রোয়েশিয়া-আইসল্যান্ড ম্যাচ ড্র হলেও আর্জেন্টিনার জন্য যথেষ্ট ছিল। আগেই শেষ ষোলো নিশ্চিত করা ক্রোয়েশিয়া এই গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।  

প্রথম ম্যাচে আইসল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্রয়ের পর ক্রোয়েশিয়ার কাছে ৩-০ গোলের হার, ২০০২ সালের পর প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের গ্রুপপর্ব থেকে বাদ পড়ার শঙ্কা চোখ রাঙাচ্ছিল আর্জেন্টিনাকে। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে বাঁচা-মরার ম্যাচে শুরুর একাদশে পাঁচটি পরিবর্তন এনেছিলেন আর্জেন্টিনা কোচ হোর্হে সাম্পাওলি। অনুমিতভাবেই জায়গা হারান ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে মারাত্মক এক ভুল করা গোলরক্ষক উইলি কাবায়েরো।  তার জায়গায় অভিষেক হয় গোলরক্ষক ফ্রাঙ্কো আরমানির।  তার সঙ্গে বানেগা, রোহো, ডি মারিয়া ও হিগুয়াইনকেও শুরুর একাদশে নিয়ে আসেন কোচ।

প্রথম দুই ম্যাচে লিওনেল মেসি ছিলেন নিষ্প্রভ। মিস করেছিলেন একটি পেনাল্টিও।  বাঁচা-মরার ম্যাচে তার জ্বলে ওঠার বিকল্প ছিল না।  মেসি  ঠিকই জ্বলে উঠলেন। ১৪ মিনিটে দারুণ এক গোলে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে দিলেন। মাঝমাঠ থেকে লম্বা করে ক্রস দিয়েছিলেন একাদশে ফেরা এভার বানেগা।  বল ধরে কিছুটা এগিয়ে যান মেসি।  বাঁ প্রান্ত দিয়ে ঢুকে জোরালো শটে ডান কোণা দিয়ে বল জালে পাঠান পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী তারকা।  এবারের বিশ্বকাপে এটিই মেসির প্রথম গোল, আসরের শততম। ৬৬২ মিনিট পর বিশ্বকাপে গোল পেলেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড!

শুরু থেকেই এদিন আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়দের দেখাচ্ছিল চনমনে। শারীরিক ভাষাতে ছিল জয়ের ক্ষুধা। ৩২ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোলটাও পেতে পারতেন মেসি। নাইজেরিয়ার লিওন বালোগুন বাঁ দিকে বক্সের সামনে ডি মারিয়াকে ফাউল করায় ফ্রি-কিক দিয়েছিলেন রেফারি। মেসির বাঁ পায়ের জোরালো শট ডান কোণা দিয়ে জালে ঢুকে যাচ্ছিল। কিন্তু নাইজেরিয়ার গোলরক্ষক ঝাঁপিয়ে পড়লেন। তার হাত ছুঁয়ে বল লাগল পোস্টে।

শেষ ষোলোয় আগামী শনিবার কাজানে ‘সি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের বিপক্ষে খেলবে আর্জেন্টিনা। পরের দিন নোভগোরদে একই গ্রুপের রানার্সআপ ডেনমার্কের মুখোমুখি হবে ক্রোয়েশিয়া।
 

Admin

0 Comments

Please login to start comments