আন্তর্জাতিক

আজ বিশ্বখ্যাত বিজ্ঞানী আইনস্টাইনের মৃত্যুবার্ষিকী


ড. আসাদুজ্জামান খান ॥ ছেলেটির মা আশা করেছিলেন তার ছেলে একদিন অধ্যাপক হবেন। মায়ের সেই আশা পূরণ করেছিলেন ছেলেটি। তবে শুধু অধ্যাপক হয়ে নয়, তার চেয়ে বড় বৈজ্ঞানিক হয়ে। ছেলেটির নাম আইনস্টাইন। পুরোনাম আলবার্ট আইনস্টাইন। 

জার্মানির উলম শহরে ১৮৭৯ সালের ১৪ মার্চ এই জগৎ বিখ্যাত বৈজ্ঞানিকের জন্ম। বাবার নাম হারম্যান আইনস্টাইন। মায়ের নাম পলিন কথ। কিশোর বয়স থেকে তার সাথী ছিল চারটি জিনিস- অংক, দর্শনশাস্ত্র, পদার্থবিদ্যা আর বেহালা। ১৯০৫ সালে আইনস্টাইন তার লেখা তিনটি প্রবন্ধ প্রকাশ করেন বিজ্ঞান বিষয়ক পত্রিকা ‘এ্যানাল দ্য ফিজিক’ এ।

প্রথম প্রবন্ধে আলোকতত্ত্বের আলোচনা, দ্বিতীয় প্রবন্ধে ব্রাউনিয় গতির সব্যাখ্যা, তৃতীয় প্রবন্ধে আপেক্ষিক তত্ত্ব বিষয়ক আলোচনা। প্রবন্ধগুলো প্রকাশের পর সমগ্র ইউরোপে বিজ্ঞানমহলে সাড়া পড়ে যায়। এরপর তিনি তার বিখ্যাত তত্ত্ব E=mc2 উদ্ভাবন করতে সক্ষম হন। ১৯১৬ সালে তিনি আপেক্ষিক তত্ত্বের সাধারণ তত্ত্ব (General Theory Of Relativitiy) প্রকাশ করেন। ১৯২১ সালে ফোটনতত্ত্বের ভিত্তিতে আলোক তত্ত্বের ক্রিয়ার ব্যাখ্যা দানের জন্য তিনি পদার্থবিদ্যায় নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। এসময় তার বয়স ছিল ৪২ বছর।

১৯৪৫ সালের ৬ আগস্ট জাপানের হিরোসিমা ও ৯ আগস্ট নাগাসাকিতে পারমাণবিক বোমা ফেলা হয়। ফলে লক্ষ লক্ষ নর-নারী নিহত হয়। আহত হয় অসংখ্য মানুষ। আর এই শক্তির আবিষ্কারক আইনস্টাইন তার ঘরে বসে ভাবতে থাকেন, মানব ইতিহাসের সর্ববৃহৎ ট্র্যাজেডির নায়ক তিনি। তিনি কি ভাবতে পেরেছিলেন প্রেসিডেন্ট রুজভেল্টকে লেখা তারই চিঠির পরিনাম এমনি মর্মঘাতি হবে। তিনি তো চেয়েছিলেন এ শক্তি মানব কল্যাণে ব্যবহৃত হবে। আর তাই তিনি আমৃত্যু নিজের আবিস্কৃত পারমাণবিক অস্ত্র প্রয়োগের বিরুদ্ধাচারণ করে গেছেন। জগতের সর্বশ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানীর সম্মান তারই প্রাপ্য।
ব্যক্তিজীবনে তিনি খুব সাধারণ জীবনযাপন করতেন। বেশির ভাগ সময়ে হেঁটে চলাচল করতেন। ময়লা ঢিলেঢালা জামাকাপড় পরে চলতেন। তিনি বলতেন ‘মানুষের মূল্য তার অন্তরের সম্পদের জন্য। বাহ্যিক আড়ম্বরের জন্য নয়।’

১৯৫৫ সালের এপ্রিল মাসে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। ১৮ এপ্রিল যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন আপেক্ষিক তত্ত্বের প্রবক্তা, পরমাণু যুগের স্রষ্টা এই মনিষী। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর ১ মাস।
 

Admin

0 Comments

Please login to start comments