জাতীয়

আওয়ামী লীগের ওপর মানুষের বিশ্বাস আস্থা ধরে রাখতে হবে: প্রধানমন্ত্রী


সিনিউজ: প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, যে দল সংগ্রাম করে ত্যাগ স্বীকার করে, মানুষের কল্যাণে কাজ করে, যাদের আন্দোলনের ফলে স্বাধীনতা, সেই দল ক্ষমতায় থাকলে দেশের উন্নয়ন হয়। আর যারা অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে ক্ষমতায় আসে তারা নিজেদের ভাগ্য গড়ার কাজে ব্যস্ত থাকে।

শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ জাতির পিতার হাতে গড়া সংগঠন এটা মনে রাখতে হবে। আমাদেরকে দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করতে হবে। সংগঠনটাকে তৃণমূল পর্যায়ে সংগঠিত করে গড়ে তুলতে হবে। নিয়মিত যেন সম্মেলন হয় সে ব্যবস্থা করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ ১০ বছর ক্ষমতায়। এই সময়ের মধ্যে আওয়ামী লীগ মানুষের আস্থা বিশ্বাস অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। মানুষ জানে যে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে তাদের উন্নতি হয়, ভাগ্যের পরিবর্তন হবে। এই বিশ্বাস, আস্থাটা ধরে রাখতে হবে। মানুষের কল্যাণে কাজ করতে। তাহলে আমরা আমাদের অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবো। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ আমরা গড়তে পারবো।

তিনি বলেন, এই যে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস,অগ্নিসন্ত্রাস সেগুলো আমরা কঠোর হাতে দমন করেছি। মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। সেটা অব্যাহত থাকবে।

বৈঠক শুরুর আগে দলের একাধিক সিনিয়র নেতা জানান, সভায় আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ইস্যু ছাড়াও ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী ইস্যুতে আলোচনা হতে পারে। তাদের নেতৃত্বে রাখা-না রাখা বিষয়েও সিদ্ধান্ত আসতে পারে। তারা বলেন, পুরো বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর নির্ভর করছে। তিনি না চাইলে আজকের বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা নাও হতে পারে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এস.খান

  •  

Admin

0 Comments

Please login to start comments